আপনি কি আপনার ওয়েবসাইটে e-commerce স্টোর তৈরি করতে চাচ্ছেন? বুঝতে পারছেন না কোন WordPress Plugin আপনার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত হবে?

আপনার মত আরও অনেকেই আছেন যারা এই বিষয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগেন। শুরুতেই সঠিক প্লাগিন/প্লাটফর্ম সিলেক্ট করে নেয়াটা জরুরি এই কারণে যে- একবার বিজনেস শুরু করে দেয়ার পর প্লাটফর্ম চেইঞ্জ করাটা অনেক শ্রম, সময় আর খরচসাপেক্ষ। তাছাড়া একটা ভাল প্লাগিন ব্যবহার করলে ওয়েবসাইটের Performance আর Scalability নিয়েও নির্ভার থাকা যায়।

এই আর্টিকেলে আমরা ওয়ার্ডপ্রেসের জন্য বেস্ট ৫টি ই-কমার্স প্লাগিন তুলনা করে এদের সুবিধা অসুবিধা আলোচনা করব।

Ecommerce ওয়েবসাইটের জন্য সেরা ৫টি WordPress Plugin এর তুলনা

WooCommerce ওয়ার্ডপ্রেসের সবচেয়ে জনপ্রিয় ই-কমার্স (অনলাইন বিজনেস) প্লাগিন। ২০১৫ সালে Automatic কোম্পানি এর স্বত্ব কিনে নেয়। WooCommerce এর জন্য বিশাল সংখ্যক থিম আর Add-on রয়েছে। এর ব্যবহারকারীও অনেক আর প্রচুর ডেভেলপার কাজ করে যাচ্ছে এর উন্নয়নে। বর্তমানে, অনেক গুলো হোস্টিং কোম্পানি WooCommerce এর জন্য বিশেষ হোস্টিং ব্যবস্থা তৈরি করছে।

WooCommerce ব্যবহারের সুবিধাসমূহ

এক্সটেনশন এবং থিম – WooCommerce এর জন্য শত শত থিম আর এক্সটেনশন আছে যার কারনে আপনি সহজেই আপনার ই-কমার্স সাইটে নতুন নতুন ফিচার যোগ করতে পারবেন। থিমের সংখ্যা বেশি হওয়ায় সাইটের ডিজাইনের ক্ষেত্রে অপশনও বেশি।

ডিজিটাল ও ফিজিকাল পণ্য বিক্রি – WooCommerce এর মাধ্যমে ফিজিক্যাল পণ্য ছাড়াও ডিজিটাল পণ্য (যেমন- ই-বুক, মিউজিক, সফটওয়্যার ইত্যাদি) বিক্রি করা সম্ভব। Envira Gallery এর WooCommerce ইন্টিগ্রেশন ব্যবহার করে আপনি ছবিও সহজে বিক্রি করতে পারবেন ওয়েবসাইট থেকে।

অ্যাফিলিয়েট ও বাইরের পণ্য বিক্রি – WooCommerce ব্যবহার করে আপনি অ্যাফিলিয়েট অথবা অন্য সাইটের পণ্য হোস্ট করতে পারেন। আফিলিয়েট মার্কেটার রা প্রোডাক্ট সাইট বানাতে পারে যা ইউজারদের একটা ভাল অভিজ্ঞতা উপহার দিতে পারে।

ইনভেন্টরি ম্যানেজমেন্ট – WooCommerce এ এমন কিছু টুলস আছে যা দিয়ে সহজেই ইনভেন্টরি ম্যানেজ করা যায়। আর চাইলে, আপনি একজন স্টোর ম্যনেজারকে এটা চালানোর দায়িত্ব দিতে পারেন।

পেমেন্ট ও শিপিং (পরিবহন) – জনপ্রিয় পেমেন্ট গেটওয়ে গুলোর জন্য WooCommerce এর বিল্ট-ইন সাপোর্ট সিস্টেম আছে। এছাড়া আপনি চাইলে নতুন পেমেন্ট অপশন যোগ করতে পারেন। এর মাধ্যমে পরিবহন খরচ এবং ট্যাক্সও হিসাব করা যায়।

সাপোর্ট ও ডকুমেন্টেশন – WooCommerce এর জন্য অনলাইনে প্রচুর কার্যকরী ডকুমেন্টেশন রয়েছে। এছাড়াও আছে অসংখ্য নলেজ বেস, হেল্প ডেস্ক আর কমিউনিটি ফোরাম।

কোথায় শিখবেন Woocommerce?

বহুব্রীহিতে WooCommerce দিয়ে ওয়েবসাইট বানানোর একটি পূর্ণাংগ ও চমৎকার কোর্স রয়েছে। ডোমেইন হোস্টিং কিনে WordPress আর Woocommerce ইন্সটল করা থেকে শুরু করে পেমেন্ট সিস্টেম সেটাপ করা পর্যন্ত একটি পূর্ণাংগ E-commerce Website তৈরি করার সবগুলো ধাপ বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে এই কোর্সে। কোর্সটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

WooCommerce ব্যবহারের অসুবিধাসমূহ

খুব বেশি অপশন – WooCommerce ব্যবহার খুব সহজ। কিন্তু এর সেটিংসে অনেক বেশি অপশন থাকায় নতুন ইউজার প্রথমে একটু অস্বস্তি বোধ করতে পারেন।

Add-on খোঁজা – যদিও অনেক অ্যাড-অন আছে কিন্তু সঠিকটা খুঁজে পাওয়া বেশ কষ্টকর হতে পারে নতুনদের জন্য। তবে এক্ষেত্রে বিভিন্ন কমিউনিটি ফোরাম আপনার জন্য সহায়ক হতে পারে।

থিম সাপোর্ট – WooCommerce যেকোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম দিয়েই চালানো গেলেও ভাল ইন্টারফেস তৈরি করা সব থিম দিয়ে সহজ না। তাই সহজে পুরো সুবিধা পাবার জন্য, যেসব থিম বিল্ট-ইন WooCommerce সাপোর্ট করে সেগুলো ব্যবহার করাই ভাল।

WooCommerce একটা ই-কমার্স ওয়েবসাইটের জন্য একদম মানানসই অপশন। এটার আছে বিশাল সংখ্যক ইউজার আর অনেক ডেভেলপার। WooCommerce বিভিন্ন ভাষা সাপোর্ট করে আর রয়েছে পেইড এবং ফ্রি সাপোর্ট।

Ecommerce ওয়েবসাইটের জন্য সেরা ৫টি WordPress Plugin এর তুলনা

Easy Digital Downloads থাকলে ওয়ার্ডপ্রেসের মাধ্যমে আপনি সহজেই ডিজিটাল ডাউনলোড করা যায় এমন পণ্য বিক্রি করতে পারেন। এটা ব্যবহার করা খুব সহজ আর এর শক্তিশালি ফিচার গুলো সুন্দর ও কার্যকরী অনলাইন স্টোর বানাতে যথেষ্ট। WpForms, SoliloquyWP ইত্যাদি সফটওয়্যার এভাবেই বিক্রি হয়।

Easy Digital Downloads ব্যবহারের সুবিধাসমূহ

ডিজিটাল পণ্য বিক্রি – Easy Digital Downloads এর একদম শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ডিজিটাল পণ্য বিক্রির জন্য বিশেষভাবে বানানো। তাই অন্য ই-কমার্স প্লাগিন যেগুলো সব ধরনের পণ্য বিক্রি করার জন্য তৈরি, তার চেয়ে Easy Digital Downloads ব্যবহারের মাধ্যমে ডিজিটাল পণ্য কেনার ক্ষেত্রে বেশি ভাল অভিজ্ঞতা প্রদান সম্ভব।

সহজবোধ্য – Easy Digital Downloads ব্যবহার করা খুব সহজ। শুরু থেকেই আপনি বুঝে যাবেন কীভাবে পণ্য অ্যাড করতে এবং সাজাতে হয়। সুতরাং একেবারে নতুনদের জন্য এটা খুবই ভাল।

এক্সটেনশন – Easy Digital Downloads এর জন্য শত শত এক্সটেনশন রয়েছে। বিভিন্ন অ্যাড-অন আছে যেগুলো পেমেন্ট গেটওয়ে, প্ল্যাটফর্ম ও অন্যান্য ফিচার যোগ করায় সহায়ক।

Theme- Easy Digital Downloads প্রায় সব ওয়ার্ডপ্রেস থিমের সাথেই কাজ করে। তবে, Easy Digital Downloads এর নিজস্ব কিছু থিম আছে যেগুলো বিশেষভাবে এই প্লাগ-ইনের জন্য ডিজাইন করা।

সাপোর্ট – প্লাগিন টা বেশ ভালভাবে ডকুমেন্টেড, রয়েছে ফ্রি সাপোর্ট ফোরাম, ভিডিও টিউটোরিয়াল এবং আই,আর,সি, চ্যাটরুম। এছাড়াও আছে প্রিমিয়াম সাপোর্ট অপশন।

Easy Digital Downloads ব্যবহারের অসুবিধাসমূহ

শুধু ডিজিটাল পণ্য – নাম থেকেই বোঝা যায়, Easy Digital Downloads ডিজিটাল ডাউনলডেবল পণ্যের জন্য খুব ভাল ও সহজবোধ্য হলেও নন-ডিজিটাল পণ্য যোগ করতে গেলে অনেক জটিলতার মুখোমুখি হতে হয়।

বাইরের পণ্য বিক্রি – আপনি যদি অন্য কোন সাইটের প্রোডাক্ট বা অ্যাফিলিয়েটেড পণ্য বিক্রি করতে চান, তাহলে আলাদা থার্ডপার্টি অ্যাড-অন ব্যবহার করতে হবে।

আপনি যদি শুধু ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করতে চান, অবশ্যই Easy Digital Downloads সবচেয়ে ভাল প্লাগিন। অনেকেই এই প্লাগিন ব্যবহার করে সাফল্যের সাথে তাদের প্রজেক্ট শেষ করেছে।

Ecommerce ওয়েবসাইটের জন্য সেরা ৫টি WordPress Plugin এর তুলনা

Shopify কোন প্লাগিন না বরং এটা “একের ভিতর সব” টাইপ একটি সল্যুশন যা সম্পূর্ণ জটিলতামুক্ত।

Shopify ব্যবহারের সুবিধাসমূহ

নতুনদের জন্য সহজবোধ্য – ই-কমার্স স্টোরের টেকনিক্যাল বিষয় যেমন SSL সেটআপ করা, বিভিন্ন পেমেন্ট গেটওয়ের সাথে যুক্ত হওয়া, পরিবহন ট্র্যাকিং ইত্যাদি নিয়ে কোন দুশ্চিন্তা করতে হবে না। Shopify এগুলো মোকাবেলা করতে সক্ষম।

ডিজিটাল ও ফিজিক্যাল পণ্য – আপনি যদি টিশার্টের মত ফিজিক্যাল পণ্য কিংবা সফটওয়্যারের মত ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করতে চান, Shopify এজন্য যথেষ্ট।

ইনভেন্টরি ম্যানেজমেন্ট – Shopify তে রয়েছে ইনভেন্টরি এডিটর, ইমপোর্টার সহ অর্ডার ট্র্যাকার যা ইনভেন্টরি ম্যানেজমেন্ট কে করবে অনেক দ্রুত আর সহজ।

পেমেন্ট ও পরিবহন – Shopify অনলাইন ও অফলাইন উভয় মাধ্যমেই পেমেন্ট সাপোর্ট করে। এছাড়া পরিবহন ব্যবস্থা সরাসরি বিভিন্ন জনপ্রিয় সংস্থা যেমন USPS এর সাথে যুক্ত হওয়া যায় যা দিয়ে আপনি সহজেই অর্ডার সম্পূর্ণ করতে পারবেন।

ফেসবুক স্টোর, ক্রয়যোগ্য পিন, টুইটার বাই বাটন – Shopify কে আপনি বিভিন্ন সাইটের সাথে সহজেই যুক্ত করতে পারেন। আপনি যদি ফেসবুক স্টোর বানাতে চান, কিংবা টুইটারে BUY বাটন যোগ করতে চান অথবা পিনটারেস্টে ক্রয়যোগ্য পিন বানাতে চান, এগুলো সবই করতে পারবেন Shopify দিয়ে।

Shopify ব্যবহারের অসুবিধাসমূহ

প্ল্যাটফর্ম ফি – Shopify প্রতি মাসে তাদের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করার জন্য ফি নেয়। এটা অনেকটা হোস্টিং কেনা বা অন্য কোন অ্যাড-অন কেনার মতো।

Shopify পেমেন্ট – Shopify চায় আপনি তাদের পেমেন্ট গেটওয়ে ব্যবহার করেন যেটা Stripe দিয়ে চলে এবং নতুনদের জন্য ভাল অপশন। কিন্তু আপনি যদি অন্য পেমেন্ট সিস্টেম অ্যাড করতে চান তবে আপনাকে অতিরিক্ত ফি দিতে হবে।

আপনি যদি শক্তিশালি, টেকনিক্যাল ঝামেলামুক্ত প্ল্যাটফর্ম চান তাহলে Shopify আপনার জন্য। ফি এর ব্যাপারটা প্রথমে ঝামেলা আর ব্যয়বহুল মনে হলেও, এর ফিচার গুলো দেখলে মনে হবে এইটুকু খরচ করাই যায়। কারন এর মাধ্যমে আপনি ফোকাস করতে পারেন তাতে যা আপনি সবচেয়ে ভাল পারেন, বিজনেস।

Ecommerce ওয়েবসাইটের জন্য সেরা ৫টি WordPress Plugin এর তুলনা

MemberPress এর মাধ্যমে আপনি সাবস্ক্রিপশনযুক্ত ডিজিটাল পণ্য ও সেবা বিক্রি করতে পারেন। এটা ওয়ার্ডপ্রেসের সবচেয়ে ভাল মেম্বারশিপ প্লাগিন যাতে রয়েছে অসংখ্য ইন্টিগ্রেশন অপশন। এমনকি WooCommerce এর সাথেও একে যোগ করা যায়।

MemberPress ব্যবহারের সুবিধাসমূহ

Subscription যুক্ত পণ্য বিক্রি – MemberPress এর মাধ্যমে আপনি সহজেই সাবস্ক্রিপশন যুক্ত পণ্য বিক্রি করতে পারেন। এতে রয়েছে মেম্বারশিপ প্ল্যান, পে পার ভিউ সহ আরও অনেক অপশন।

শক্তিশালি Access Control – এর শক্তিশালি কন্ট্রোল ব্যবস্থার মাধ্যমে আপনি এক্সেসের ধাপ এবং কনটেন্ট সীমাবদ্ধতা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। শুধুমাত্র অনুমোদিত ইউজাররাই সীমাবদ্ধ কনটেন্ট দেখতে পারবেন।

শক্তিশালি Extensions – আপনি চাইলে MemberPress কে WooCommerce কিংবা LearnDash LMS এর সাথে যুক্ত করতে পারেন। এছাড়া আরও অনেক এক্সটেনশন আছে যার মাধ্যমে MemberPress কে অনু থার্ড পার্টি এর সাথে যুক্ত করা যায়।

MemberPress ব্যবহারের অসুবিধাসমূহ

পেমেন্ট অপশন – পেমেন্টের জন্য MemberPress শুধুমাত্র Paypal, Stripe আর Authorize.net সাপোর্ট করে।

বার্ষিক ফি – MemberPress এ শুধুমাত্র বার্ষিক ফি এর প্ল্যান রয়েছে।

Ecommerce ওয়েবসাইটের জন্য সেরা ৫টি WordPress Plugin এর তুলনা

চলুন Shopp প্লাগিন টির ভিতরকার বিষয়গুলো জেনে নেয়া যাক।

Shopp ব্যবহারের সুবিধাসমূহ

আলাদা ডাটাবেজ টেবিল – Shopp এর ডেভেলপাররা বিশ্বাস করেন যে, আলাদা ডাটাবেজ টেবিল ব্যবহারের কারনে ডাটাবেজ ভাল কাজ করে। আর কারনে Query গুলো দ্রুত হয় আর পেজ দ্রুত লোড হয়।

বিভিন্ন ধরনের পণ্য – Shopp প্লাগিন দিয়ে ডিজিটাল, ফিজিক্যাল, ভার্চুয়াল সব ধরনের পণ্য বিক্রি করা যায়। অন্য প্লাগিন থেকে এই ভিন্নতা হল, এর সাবস্ক্রিপশন সিস্টেমের মাধ্যমে আলাদা এক্সটেনশন ছাড়াই পেমেন্ট ও পণ্য বিক্রি সম্পন্ন করা যায়।

নিরাপত্তা ও সম্মতি – Shopp প্লাগিন PCI দ্বারা সম্মতি প্রাপ্ত। এই প্লাগিন টিতে নিরাপত্তার ব্যাপারে জোর দেয়া হয়েছে যা আপনাকে PCI-DSS সম্মত ই-কমার্স স্টোর বানাতে সাহায্য করবে।

Shopp ব্যবহারের অসুবিধাসমূহ

সীমাবদ্ধ ফ্রি সাপোর্ট – Shopp প্লাগিন ব্যবহারের সবচেয়ে বড় সমস্যা হল, এর কোন ফ্রি সাপোর্ট ফোরাম নেই। সাপোর্ট পেতে এবং কমিউনিটি ফোরামে যুক্ত হতে আপনাকে ফি দিতে হবে।

আলাদা টেবিল সৃষ্টি – যদিও এটা সুবিধাগুলোর ভিতর একটা কিন্তু এটা অসুবিধারও কারন হতে পারে। অনেকে মনে করেন, আলাদা ডাটাবেজ টেবিল ব্যবহারে ওয়েবসাইটএর গতি তেমন পরিবর্তন হয়।

অল্প সংখ্যক থিম – Shopp প্লাগিন যেকোন ওয়ার্ডপ্রেস থিমের সাথেই কাজ করে। কিন্তু আপনি যদি Shopp এর জন্য বিশেষভাবে বানানো থিম খুঁজে পেতে চান, তাহলে খুব অল্প অপশন রয়েছে।

Shopp অত্যন্ত ভাল প্লাগিন যদি আপনি যা খুশি বিক্রি করতে চান। কিন্তু আপনি যদি নতুন ব্যবহারকারী হন, তাহলে প্রিমিয়াম সাপোর্ট কেনা জরুরি হতে পারে। এছাড়া আপনি যদি মনে করেন, অন্য প্লাগিন গুলো আপনার জন্য PCI-DSS সম্মতি পেতে সহায়ক নয়, তাহলে Shopp প্লাগিন ব্যবহার করতে পারেন।

Galib Hassan Khan

Galib Hassan Khan

Co-Founder & CFO at Bohubrihi
An enthusiast who instead of doing what others do, likes to stand for a while and thinks "what's happening out there?"
Galib Hassan Khan
Rate This Article

Leave a Comment

avatar
  Subscribe  
Notify of
Do NOT follow this link or you will be banned from the site!