Windows এর পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে কম্পিউটারে লগ ইন করা যায় না। তবে চিন্তার কিছু নেই, পাসওয়ার্ড ভুলে যেতেই পারেন! নিচের যেকোনো একটি উপায়ে আপনি এই সমস্যা সমাধান করতে পারেন।

১. Windows এর পাসওয়ার্ড অনলাইনে পরিবর্তন করুন

(যদি আপনি আগে কখনো আপনার Microsoft account রেজিস্টার করে তা কম্পিউটারে লগ ইন করতে ব্যবহার করে থাকেন, সেক্ষেত্রে এই মেথড আপনার কাজে লাগবে। Windows এ সয়ঙ্ক্রিয়ভাবেই এই অপশন চালু থাকে, যদি না আপনি নিজে অন্য অপশনে পরিবর্তন করেন)

-প্রথমে অন্য কোন কম্পিউটারের ওয়েব ব্রাউজারে টাইপ করুনঃ https://account.live.com/resetpassword.aspx

website ওপেন হলে সিলেক্ট করুন “I forgot my password”, এরপর “Next” বাটনে এ ক্লিক করুন।

-আপনার ইমেইল আড্রেস টাইপ করুন। সাধারণত Microsoft account এর নামের শেষে @live.com, @outlook.com অথবা @hotmail.com থাকে। আপনার অ্যাকাউন্টের নাম যদি ওয়েবসাইট চিনতে না পারে সেক্ষেত্রে অবশ্যই এই তিনটির যেকোন একটি যোগ করতে হবে। তারপর সিকিউরিটি পাজলটি সমাধান করে “Next” বাটনে ক্লিক করুন।

-দুইটি ভেরিফিকেশনের যেকোনো একটি সিলেক্ট করুন। আপনার আগের অ্যাকাউন্ট খোলার সময় আপনি Recovery email অথবা Phone number দিয়ে থাকবেন। যেকোনো একটি থাকলেই হবে। সেটি টাইপ করে “Send code” এ ক্লিক করুন।

-যদি আপনি আগে ইমেইল বা ফোন নম্বর কোনটিই না দিয়ে থাকেন, তবে “I don’t have any of these” এ ক্লিক করুন। “Enter an email address that’s different from the one you’re trying to recover” এখানে আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস টাইপ করুন, তবে অবশ্যই Microsoft account এর ইমেইল বাদে অন্য ইমেইল টাইপ করবেন। তারপর ভেরিফিকেশন কোড আপনার নতুন ইমেইলে পেতে “Next” এ ক্লিক করুন।

-এবার ভেরিফিকেশন কোড টাইপ করুন ”Enter your security code” এ। তারপর “Next” ক্লিক করুন। আগের পাসওয়ার্ড রিসেট হয়ে যাবে।

আপনি যদি কোডটি টেক্সট মেসেজ বা ইমেইলে পেয়ে থাকেন তাহলে নতুন পাসওয়ার্ড দিয়ে পারবেন। নতুন পাসওয়ার্ডটি কনফার্ম করলেই আপনি আপনার Microsoft account এ লগ ইন করতে পারবেন। অর্থাৎ Windows এ লগ ইন করতে কোন সমস্যা হবে না।

আর যদি আপনি নতুন ইমেইল অ্যাড্রেস দিয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে একটি ফর্ম দেয়া হবে। ওখানে আপনাকে অনেক গুলো ভেরিফিকেশন তথ্য দিতে হবে। যোগাযোগের ঠিকানা, বিলিং ইনফরমেশন এবং আগের পাসওয়ার্ড সম্পর্কে জানতে চাওয়া হবে। এই ডাটা গুলো Microsoft এর কাছে চলে যাবে। ওরা আপনার তথ্যগুলো যাচাই করে আপনার ইমেইল অ্যাড্রেসে যোগাযোগ করবে এবং পাসওয়ার্ড রিসেট করার লিঙ্ক দেবে।

২. Safe mode এ পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করুন

এই পদ্ধতি অনুযায়ী লগ ইন স্ক্রিন থেকে restart করতে হবে, তবে একটু অন্যভাবে।

-প্রথমে লগিন স্ক্রিনের Power বাটনে ক্লিক করুন। কিবোর্ডে “Shift” key চেপে ধরুন এবং “Restart” বাটনে ক্লিক করুন।

রিস্টার্ট হবার পর একটি স্ক্রিন আসবে যেখানে থাকবেঃ “Choose an option”.

-ক্লিক করুন “Troubleshoot”এ। তারপর “Advanced Options” সিলেক্ট করুন। এরপর “Startup Settings” এ যান আর “Restart” এ ক্লিক করুন। এবার আরেকটি স্ক্রিন আসবে।

-কিবোর্ড থেকে 4 অথবা F4 প্রেস করুন (একেক কম্পিউটারে এক এক রকম)। এবার আপনি Safe mode log in secreen দেখতে পাবেন। Arrow icon থেকে “Administrator” নামক অ্যাকাউন্ট এ ক্লিক করুন তাহলে কোন পাসওয়ার্ড লাগবে না।

-কিবোর্ড থেকে Windows + X প্রেস করুন। “Control panel” এ গিয়ে “User account” সিলেক্ট করুন। “Manage another account” এ যান। এখানে অ্যাকাউন্টের লিস্ট দেখতে পাবেন। আপনার অ্যাকাউন্টটি বেছে নিন। “Change Password” এ ক্লিক করুন। এখন আপনি আপনার পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারবেন।

-এবার কিবোর্ড থেকে Ctrl + Alt + Delete প্রেস করুন, তারপর Power icon এ ক্লিক করে “Restart” সিলেক্ট করুন। রিস্টার্ট হবার পর আপনি আপনার আগের ইউজার নেম আর নতুন পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন করতে পারবেন।

টিপসঃ পাসওয়ার্ড সংক্ষিপ্ত এবং শক্তিশালি রাখুন। সহজে ভুলে যাবেন না এরকম পাসওয়ার্ড বেছে নিন। চাইলে কোথাও লিখে রাখতে পারেন।
আর এই আর্টিকেলটি দরকারি মনে হলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না!

Galib Hassan Khan

Galib Hassan Khan

Co-Founder & CFO at Bohubrihi
An enthusiast who instead of doing what others do, likes to stand for a while and thinks "what's happening out there?"
Galib Hassan Khan
Rate This Article

Leave a Comment

avatar
  Subscribe  
Notify of
Do NOT follow this link or you will be banned from the site!